1. admin@cumillardurbin.com : admin :
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
RANGS ELECTRONICS LTD-এর ১২ কোটি টাকা আত্মসাৎ মামলার প্রধান আসামী শুভ কুমিল্লা জেলা পুলিশ কর্তৃক গ্রেফতার ঢাকা কাঁপাতে আসছে বিটিএস ব্র্যান্ড সাংবাদিকতায় অনন্য ভূমিকা রাখায় সম্মাননা পেলেন আরটিভির সাংবাদিক নাইমুর রহমান শান্ত মালেশিয়ায় বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতির আয়োজনে কুমিল্লার নামে বিভাগ বাস্তবায়নের লক্ষে মতবিনিময় সভা গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ডাঃ তাহসিন বাহার সূচনা কুমিল্লা-৩৫০০” এর সিলেট ও সুনামগঞ্জে ত্রান-সাহায্য প্রদান মহানবীকে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে লাকসামে বিক্ষোভ মিছিল। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ৭১ টিভির গাড়ি ভাঙ্গচুর কুমিল্লাস্থ বৃহত্তর লাকসাম-মনোহরগঞ্জ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের পুনঃমিলনী-২০২২ অনুষ্ঠিত কুসিক নির্বাচনে বিজয়ী হলে ঘুষ না নেওয়া সহ রিফাতের ১১ দফার অঙ্গিকার।

একুশে পদকপ্রাপ্ত কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনই বাংলা একাডেমির নতুন সভাপতি

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ১৪৭ বার পঠিত

একুশে পদকপাপ্ত কথাসাহিত্যিক ও ঔপন্যাসিক সেলিনা হোসেনকে বাংলা একাডেমির নতুন সভাপতি পদে নিয়োগ দিয়েছে সরকার। বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করে তাকে তিন বছরের জন্য এই নিয়োগ দেওয়া হয়।গত বছরের ৩০ নভেম্বর বাংলা একাডেমির সভাপতি স্বাধীনতা ও একুশে পদকপাপ্ত শিক্ষাবিদ, গবেষক এবং লেখক অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম মারা যান। এরপর থেকে পদটি শূন্য ছিল। বাংলা একাডেমি আইন, ২০১৩’ এর ধারা-৬ (১) এবং ৬ (৩) অনুযায়ী অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সঙ্গে কর্ম-সম্পর্ক পরিত্যাগের শর্তে সেলিনা হোসেন এই নিয়োগ পেয়েছেন। যোগদানের তারিখ থেকে এই নিয়োগ কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

প্রেম একবার এসেছিল নীরবে।আপনার জীবনে কয়বার এসেছে? উত্তরে বলেছিলেন -‘ একবার নয়, দুবার এসেছে আমার জীবনে’। আবার তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছে -‘ আপনার লেখায় জীবনের কথা যেভাবে আসছে,সেভাবে আসেনি নারী-পুরুষ, প্রেম-ভালবাসা – সেটা কেন? তাঁর উত্তর ছিল প্রেম তো জীবনেরই অংশ।কখনো আসেনি তা নয়। খুঁজে দেখুন পাবেন।তবে কাহিনীর প্রয়োজনে প্রেম না এলে অকারণে তো আনতে পারা যায়না’। যার জীবনে প্রেম দুবার আসলেও অকারণে তাঁর লেখায় প্রেম আনেন নাই। তিনি একটি সমতা ভিত্তিক সমাজ বির্ণিমানে নারীর ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করলেও মনে করেন-‘ সাহিত্য ক্ষমতায়নের জায়গা নয়। সৃজনশীলতার বিকাশ’। নারীর এই সৃজনশীলতার বিকাশে দেবযানী সেনগুপ্তের সাথে সম্পাদনা করেছেন ‘দক্ষিণ এশিয়ার নারীবাদী গল্প’। নারীর ব্যক্তিচেতনাকে ফোকাস করে এগিয়ে যাবার মন্ত্রে লিখেছেন উপন্যাস ‘পদশব্দ ‘। এসএসসি পাশের আগে পাঠ্যপুস্তকের বাইরে খুব বেশি আউট বই না পড়লেও মানুষ,প্রকৃতি, জীবনকে পাঠশালা মানা তিনিই প্রথম ছিটমহল বিষয় নিয়ে আন্তঃরাষ্ট্রিক পটভূমিতে লিখেছেন উপন্যাস ‘ ভূমি ও কুসুম’। জীবনবোধের ইতিবাচক প্রত্যয়ে উজ্জীবিত বিচিত্র বিষয়কে উপজীব্য করে নির্মাণ করেছেন তাঁর সাহিত্যভুবন। ইতিহাসের রাজপথ থেকে গলিতে আলো ফেলে রচনা করেছেন সমকালীন জীবনবেদ।
মহান মুক্তিযুদ্ধের আলোকে লিখেছেন ‘ হাঙর নদী গ্রেনেড'(১৯৭৬),যুদ্ধ (১৯৯৮),গেরিলা ও বীরাঙ্গনা(২০১৪)। আবার বাংলা সাহিত্যের আদি নির্দশন চর্যাপদ অবলম্বন রচনা করেছেন নীলময়ূরের যৌবন, মনসামঙ্গল কাব্য ভেঙে চাঁদবেনে, চণ্ডীমঙ্গলের ছায়ায় কালকেতু ও ফুল্লরা। আবার রবীন্দ্রনাথের পূর্ববঙ্গে বাস নিয়ে লিখেছেন ‘ পূর্ণ ছবির মগ্নতা’ ইলামিত্রের জীবন সংগ্রাম নিয়ে কাঁটাতারের প্রজাপতি,গালিবের কবি প্রতিভা নিয়ে যমুনা নদীর মুশায়রা। এসবের পাশাপাশি শিশু কিশোরদের জন্য লিখেছেন’ সাগর’ গল্পে বর্নমালা’ কাকতাড়ুয়া। সম্পাদনা করেছেন ধান-শালিকের দেশ। ১৯৪৭ সালের ১৪ জুন রাজশাহীতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার পৈতৃক নিবাস লক্ষ্মীপুর জেলার হাজিরপাড়া গ্রামে। বাবা এ কে মোশাররফ হোসেনের আদিবাড়ি নোয়াখালী হলেও চাকরিসূত্রে বগুড়া ও পরে রাজশাহী থেকেছেন দীর্ঘকাল।

সেলিনা ১৯৫৪ সালে বগুড়ার লতিফপুর প্রাইমারি স্কুলে তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি হন। ১৯৫৯ সালে রাজশাহীর নাথ গালর্স স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে ভর্তি হন। ১৯৬২ সালে তিনি এখান থেকে মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। পরবর্তীতে ১৯৬৪ সালে রাজশাহী মহিলা কলেজে ভর্তি হন। কলেজ জীবন শেষ করে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য নিয়ে ভর্তি হন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে। ১৯৬৭ সালে বিএ অনার্স এবং ১৯৬৮ সালে এমএ পাস করেন।

সেলিনা ১৯৭০ সালে বাংলা একাডেমির গবেষণা সহকারী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। এর পূর্বে তিনি বিভিন্ন পত্রিকাতে উপসম্পাদকীয়তে নিয়মিত লিখতেন। কর্মরত অবস্থায় তিনি বাংলা একাডেমির ‘অভিধান প্রকল্প’, ‘বিজ্ঞান বিশ্বকোষ প্রকল্প’, ‘বিখ্যাত লেখকদের রচনাবলী প্রকাশ’, ‘লেখক অভিধান’, ‘চরিতাভিধান’ এবং ‘একশত এক সিরিজের’ গ্রন্থগুলো প্রকাশনার দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়া ২০ বছরেরও বেশি সময় ‘ধান শালিকের দেশ’ পত্রিকা সম্পাদনা করেন। তিনি ১৯৯৭ সালে বাংলা একাডেমির প্রথম মহিলা পরিচালক হন। ২০০৪ সালের ১৪ জুন চাকুরি থেকে অবসর নেন। তার প্রথম গল্পগ্রন্থ উৎস থেকে নিরন্তর প্রকাশিত হয় ১৯৬৯ সালে। তার মোট উপন্যাসের সংখ্যা ৩৫টি, গল্প গ্রন্থ ১৩টি, ২২টি শিশু-কিশোর গ্রন্থ এবং প্রবন্ধের গ্রন্থ ১০টি। এছাড়া ১৩টি সম্পাদনা গ্রন্থ প্রকাশ করেছেন।

কর্মচঞ্চল শ্রদ্ধেয় কথাশিল্পীর সুস্থতা কামনা করে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ কুমিল্লার দূরবীন.কম । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা ছবি ভিডিও অনুমতি ছাড়া কপি করা বে-আইনি। সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদে কুমিল্লার দূরবীণের সাথেই থাকুন।
Theme Customized By Theme Park BD